শিরোনাম
আশুগঞ্জে সরকার ঘোষিত লকডাউন চলছে” ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকলেও বসেছে রমরমা সাপ্তাহিক হাট” চাঁদপুরে সর্বাত্মক লকডাউন কার্যকর করতে কঠোর অবস্থানে মাঠে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন ১৪ এপ্রিল আশুগঞ্জ গণহত্যা ও প্রতিরোধ দিবস -অধ্যক্ষ মোঃ শাহজাহান আলম সাজু জামালপুর জেলা বিএডিসি হিমাগার চুক্তিবদ্ধ চাষীদের কৃষক সম্মেলন গুনারীতলা ইউপি চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যক্ষ সফিউল আলমের দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা করোনার দ্বীতিয় ঢেউ, কেন্দুয়া বাসীকে সচেতন করলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহেল মাদারগঞ্জে ঝুপড়ি ঘরে থাকা সূর্য্য ভান বেগমকে পাকাঘরের ব্যবস্থা করলেন উপজেলা চেয়ারম্যান জামালপুরে অগ্নিসন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মৌলবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ জামালপুরে সাংবাদিক গড়ার কারিগর শফিক জামানকে স্মরণ মাদারগঞ্জের ৪ নং বালিজুড়ী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী লিজু’র দলীয় মনোনয়ন পত্র জমা
শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৮ পূর্বাহ্ন
Notice :
মানব কথন. com এ আপনাকে স্বাগতম। সারাদেশব্যাপী জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে এবং প্রবাসে মানব কথন. com এর প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। মানব কথন. com এর প্রতিনিধি হতে info@manobkathan.com এ আপনার CV মেইল করুন। প্রয়োজনে যোগাযোগ করুনঃ ০১৭১২৯৬২০৫১ এই নাম্বারে।

অসুস্থ কাউন্সিলরের ত্রান কার্যক্রম স্বচ্ছভাবে চালিয়ে প্রশংসায় ছেলে

মোঃআল-আমিন গাজীপুর প্রতিনিধিঃ / ১৭৫৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ৩ জুন, ২০২০

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৪৭ নং ওয়ার্ডে স্বচ্ছভাবে ত্রান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন কাউন্সিলর সাদেক আলীর ছেলে সাইদুর রহমান সুমন। করোনা সংকটের শুরু থেকে এ পর্যন্ত প্রায় ৬ হাজার পরিবারের মাঝে স্বচ্ছভাবে সিটি কর্পোরেশন কর্তিক প্রেরিত নিত্যপণ্য বিতরণ ছেন কাউন্সিলর পুত্র। জানা গেছে, ওয়ার্ড কাউন্সিলর সাদেক আলী হঠাৎ স্টক করায় তার মাথায় অস্ত্রোপচার করা হয়। এ সময়ে কাউন্সিলর হাসপাতালে ভর্তি থাকাকালিন সময় ত্রাণ কার্যক্রম চালিয়ে যান কাউন্সিলর পুত্র। তিনি জানান, করোণা সংকটের মধ্যেই হঠাৎ কাউন্সিলর অসুস্থতা অনুভব করেন। দ্রুত সময়ের মধ্যে তাকে হাসপাতালে নেয়া হলে সিটিস্ক্যানের মাধ্যমে জানা যায় তার মাথায় রক্ত জমাট বেঁধে আছে। এমতাবস্থায় তার মাথায় অস্ত্রোপচার হয়। এরপর হাসপাতাল ভর্তি থাকা অবস্থায় ওয়ার্ডের ত্রাণ কার্যক্রম ওয়ার্ড সচিব ও সিটিকর্পোরেশনের কর্মকর্তাদের নিয়ে লিস্ট অনুযায়ী স্বচ্ছভাবে ত্রাণকার্য চালিয়ে যাই। তিনি আরো বলেন, এযাবৎকাল আমরা প্রায় ছয় হাজার পরিবারের মাঝে নিত্যপন্য বিতরন করেছি। যে পরিবার মাঝে সরকারি নিত্যপণ্য বিতরণ করেছি,সব স্লীপ ও নাম ঠিকানাসহ আমাদের কাছে সংরক্ষিত আছে। এছাড়াও আমরা ব্যক্তিগত উদ্যোগে বহু পরিবারের মাঝে ত্রাননদিযে যাচ্ছি। সামনের দিনগুলোতেও আমরা এভাবে স্বচ্ছতার সাথে কাজ চালিয়ে যাব। সান কার্যক্রমে কোন ধরনের স্বজনপ্রীতি বা কোন ধরনের অস্বচ্ছতা রাখিনি। ৪৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা মোসাম্মৎ আলো বেগম জানান, আমরা সঠিকভাবেই সরকারি সামগ্রী পেয়েছি। ইতিপূর্বে আমরা এত স্বচ্ছতার সাথে পাই নি।কাউন্সিলরের অনুপস্থিতিতে ও তার ছেলে সুমন স্বচ্ছভাবে ত্রান দিয়ে যাচ্ছেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ